অভিযান শুরু রাজউকের ত্রুটিপূর্ণ বহুতল ভবন শনাক্ত করতে - Alokitobarta
আজ : বুধবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

অভিযান শুরু রাজউকের ত্রুটিপূর্ণ বহুতল ভবন শনাক্ত করতে


আলোকিত বার্তা:রাজধানীর অধিক ঝুঁকি ও ত্রুটিপূর্ণ বহুতল ভবন শনাক্ত করতে অভিযান শুরু করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। আট জোনে সংস্থাটির ২৪টি টিম এ অভিযান শুরু করেছে।রাজউকের বিভিন্ন জোনের অথোরাইজড অফিসার,সহকারী অথরাইজড অফিসার, প্রধান ইমারত পরিদর্শক, ইমারত পরিদর্শকের সমন্বয়ে সোমবার থেকে এ অভিযান চালানো হচ্ছে।রাজউকের পরিচালক (প্রশাসন) ও জোন-৬ (মতিঝিল, ভুলতা)-এর অথরাইজড অফিসার খন্দকার অলিউর রহমান এ বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন,সকাল ১০টা থেকে রাজউকের এ অভিযান শুরু হয়ে দুপুর ১২টা পর্যন্ত চলে। রাজধানীর দৈনিক বাংলা এলাকায় তথ্য সংগ্রহ শুরু করা হয়। আল-আরাফা টাওয়ার ও আইএফআইসি ব্যাংক টাওয়ার পরিদর্শন করে তথ্য সংগ্রহ শুরু করে রাজউক কর্তৃপক্ষ।তিনি আরো বলেন,আমরা আজ সকাল ১০টা থেকে অভিযান শুরু করেছি। রাজধানীতে গড়ে উঠা বহুতল ভবনগুলোতে কোনো ধরনের ত্রুটি এবং ফায়ার সেফটি নিরাপত্তা আছে কি না এসব পরীক্ষা করা হচ্ছে। অভিযানে ১০ তলা ভবনের ওপরের বহুতল ভবনগুলোর বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করা শুরু করা হয়েছে।রাজউকের উত্তরা জোন-২ এর অথরাইজড অফিসার আশরাফুল ইসলাম অভিযানের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, অভিযানের অংশ হিসেবে সোমবার থেকে জোন-১ এর পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল মতিন ও অথরাইজড অফিসার সরদার মুহাম্ম্মদ মাহবুবুর রহমানের নেতৃত্বে আশুলিয়া ও ধামসোনা, জোন-২ এর অথরাইজড অফিসার আশরাফুল ইসলামের নেতৃত্বে উত্তরা, টঙ্গী ও গাজীপুর এলাকা, জোন-৩ এর পরিচালক মুহাম্মদ খায়রুজ্জামান ও অথরাইজড অফিসার মোবারক হোসেনের নেতৃত্বে সাভার ও মিরপুর, জোন-৪ এর পরিচালক মোহাম্মদ মামুন মিয়া ও অথরাইজড অফিসার সেগুফতা শারমীনের নেতৃত্বে গুলশান, বনানী, মহাখালী ও পূর্বাচল, জোন-৫ এর পরিচালক মোহাম্মদ শাহ আলম চৌধুরী ও অথরাইজড অফিসার নুরুজ্জামান জাহিরে নেতৃত্বে ধানমন্ডি ও লালবাগ, জোন-৭ এর পরিচালক আনন্দ কুমার বিশ্বাস ও অথরাইজড অফিসার নূর আলমের নেতৃত্বে কেরানীগঞ্জ, জুরাইন, সূত্রাপুর ও ওয়ারী এবং জোন-৮ এর অথরাইজড অফিসার মাকিদ এহসানের নেতৃত্বে ডেমরা, নারায়ণগঞ্জ ও সোনারগাঁও এলাকায় অভিযান শুরু করা হয়েছে।

প্রথম পর্যায়ের এই অভিযানে তথ্য সংগ্রহ করার পর তা জনসম্মুখে প্রকাশ করা হবে এবং পরবর্তী কর্মপরিকল্পনা হাতে নেয়া হবে বলে রাজউকের এক কর্মকর্তা জানান।২৮ মার্চ বনানীর কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ের ২৩ তলা এফআর টাওয়ারে আগুন লেগে ২৬ জনের মৃত্যু হয়, আহত হন অর্ধশতাধিক মানুষ।সরকারের মন্ত্রীদের তরফ থেকেই বলা হচ্ছে,১৮ তলার অনুমোদন নিয়ে ভবনটি ২৩ তলা করা হয়েছিল এবং অগ্নি নিরাপত্তার যথাযথ ব্যবস্থা সেখানে ছিল না।এই পরিস্থিতিতে ভবন নির্মাণে অনিয়ম ও অগ্নি নিরাপত্তা খতিয়ে দেখতে রাজউকের ২৪টি দল মাঠে নামবে বলে গত শনিবার ঘোষণা দেন গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।তিনি বলেন,যেসব ভবনে পরিকল্পনা নকশা অনুযায়ী করা হয়নি, সেসব ভবনের বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব। নিয়মের বাইরে যেসব থাকবে সেগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Top
%d bloggers like this: