সাথে সাথে ব্যবস্থা,চাঁদাবাজি হলে জানান - Alokitobarta
আজ : সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সাথে সাথে ব্যবস্থা,চাঁদাবাজি হলে জানান


আলোকিত বার্তা:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, কোথাও কোনো ধরনের চাঁদাবাজি হলে সাহস করে আমাদের জানান, সাথে সাথে ব্যবস্থা নেয়া হবে।তিনি বলেন, আমরা চাই চাঁদাবাজমুক্ত পরিবেশে সবাই ব্যবসা করবেন, ক্রেতারা স্বাচ্ছন্দ্যে তাদের পণ্য কিনবেন।রাজধানীর কারওয়ান বাজারে মঙ্গলবার বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি ও মহানগর দোকান মালিক সমিতি আয়েজিত মাহে রমজান উপলক্ষে পরিমিত ক্রয় ক্যাম্পেইন প্রোগ্রাম-২০১৯ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, একসময় রাজধানীর কারওয়ানবাজার এলাকার মানুষ স্বস্তিতে বাস করতে পারেনি। কারণ এ এলাকায় প্রায় মানুষ খুন হতো, ব্যবসায়ীরা শান্তিতে ব্যবসা করতে পারতেন না। আজ ব্যবসায় শান্তি ফিরে এসেছে, ব্যবসায়ীরা শান্তিতে ব্যবসা করতে পারছেন। ক্রেতার টাকাও ছিনতাই হয় না।

তিনি বলেন, এখনো কিছু সমস্যা রয়ে গেছে, এটা ব্যবসায়ীদের ব্যর্থতা। তারা যদি প্রশাসনকে না জানান তাহলে কিভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোথাও কোনো ধরনের চাঁদাবাজি হলে একবার সাহস করে আমাদের জানান, সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেয়া হবে।তিনি আরো বলেন, কোনো ধরনের চাঁদাবাজকে আমরা প্রশ্রয় দেবো না। সর্বদা সব জায়গায় শান্তি থাকবে, এটাই সরকারের প্রত্যাশা।এ সময় ভেজালকারীদের ছাড় দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ার করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।পরিমিত ক্রয় ক্যাম্পেইন সম্পর্কে তিনি বলেন, শুধু কারওয়ান বাজারে নয়, এ ধরনের বাজার রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে চালু করা উচিত।ঢাকা উত্তর সিটি মেয়র (ডিএনসিসি) আতিকুল ইসলাম বলেন, বিশ্বের সব জায়গায় রমজান এলে পণ্যের দাম কমে, আমাদের দেশে বেড়ে যায়। আবার এই রমজানে খাদ্যে ভেজাল নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করা লাগে। এই সংস্কৃতি থেকে আমাদের বেরিয়ে আসার সময় এসেছে।রমজানে নিত্য পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, ঈমানের অঙ্গ হিসেবে রমজান মাসে খাদ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখা উচিত।

র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ বলেন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে দ্রব্যমূল্যের বাড়ানো হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। নিরাপদ খাদ্য আইন ২০১৩ সংশোধন করে এতে মৃত্যুদণ্ডের বিধান অন্তর্ভুক্ত করতে হবে যাতে খাদ্যে কেউ ভেজাল মেশাতে সাহস না পায়।
রমজান এলে প্রতিবছর বেড়ে যায় কাঁচাবাজারসহ নিত্যপণ্যের দাম। তবে এবছর দ্রব্যমূল্য নিয়ে বিড়ম্বনা এড়িয়ে জনমনে স্বস্তি দিতে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি ও ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতি আয়োজন করে পরিমিত ক্রয় ক্যাম্পেইন। যেখানে স্বল্প মূল্যে বিক্রি করা হচ্ছে, শশা, বেগুন, কাঁচামরিচ ও টমেটোসহ বেশ কয়েকটি পণ্য।পরিমিত ক্রয় ক্যাম্পেইন প্রোগ্রামে মাত্র ১৫০ টাকায় দুই দিনের ইফতারের কাঁচা বাজার পাওয়া যাবে। যার মধ্যে রয়েছে শসা ৫০০ গ্রাম, বেগুন ৫০০ গ্রাম, লেবু ৪টি, আলু ১ কেজি, পেঁয়াজ ১ কেজি, কাঁচা মরিচ ৩০০ গ্রাম, টমেটো ৫০০ গ্রাম এবং গাজর ৫০০ গ্রাম।বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও মহানগর দোকান মালিক সমিতির তৌফিক এহেসানের পরিচালনায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন এফবিসিসিআই’র সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, সাবেক সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ, ক্যাব সভাপতি গোলাম রহমান প্রমুখ।

Top
%d bloggers like this: