নিরাপত্তাশঙ্কা নেই’পয়লা বৈশাখ উপলক্ষে কোনো - Alokitobarta
আজ : মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিরাপত্তাশঙ্কা নেই’পয়লা বৈশাখ উপলক্ষে কোনো


আলোকিত বার্তা:ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহাম্মদ আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন,পয়লা বৈশাখ উপলক্ষে কোনো নিরাপত্তাশঙ্কা নেই। সর্ব প্রচেষ্টা দিয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিতে কাজ করছি আমরা।তিনি বলেন,পহেলা বৈশাখে বরাবরের মতো চারুকলা অনুষদ চত্বর থেকে বের হবে মঙ্গল শোভাযাত্রা। এই শোভাযাত্রার সামনে, পেছনে ও দুই পাশে থাকবে নিরাপত্তা বলয়। যারা অংশ নিতে চাইবে তাদের সবাইকে চারুকলা চত্বর থেকে অংশ নিতে হবে। নিরাপত্তা বলয় ভেদ করে মাঝপথে কেউ মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নিতে পারবে না।রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে বর্ষবরণ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার নিরাপত্তাব্যবস্থা বিষয়ে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।ডিএমপি কমিশনার বলেন,ঢাকা মহানগর এলাকায় বাংলা নববর্ষ উদ্‌যাপন উপলক্ষে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। নিয়মিত পোশাকের পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকের সদস্যরা থাকবেন। জরুরি অবস্থা মোকাবিলায় সোয়াট তৈরি থাকবে। পাশাপাশি দমকল বাহিনী এবং মেডিকেল টিমও তৈরি থাকবে।

তিনি বলেন,অন্যান্য নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে সমন্বয় করে নিরাপত্তাব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। প্রত্যেক ব্যক্তি তল্লাশির পরেই অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ করতে পারবেন।তিনি বলেন,এবার শোভাযাত্রা চারুকলা চত্বর থেকে বের হয়ে শাহবাগ মোড়,ঢাকা ক্লাবের সামনে থেকে ঘুরে আবার শাহবাগ মোড় ও টিএসসি হয়ে চারুকলায় এসে শেষ হবে। শোভাযাত্রায় কোনো ধরনের মুখোশ পরা যাবে না। সব ধরনের মুখোশ ও ভুভুজেলা নিষিদ্ধ থাকবে।পয়লা বৈশাখে মার্কিন দূতাবাসের পক্ষ থেকে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে- এমন প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, মার্কিন দূতাবাস রেড অ্যালার্ট দিয়েছে কি না, তা আমাদের বিবেচ্য বিষয় না। আমরা আমাদের নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাজ করছি। কোনো ধরনের নাশকতার অপচেষ্টা করা হলে তা মোকাবিলা করা হবে।

তিনি বলেন,রমনা বটমূল ও সোহরাওয়ার্দী এলাকার অনুষ্ঠান ছাড়াও রাজধানীর প্রত্যেকটি এলাকায় আয়োজিত বৈশাখ বরণের অনুষ্ঠানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এবার জরুরি সেবা তথ্য জানাতে স্থাপন করা হয়েছে শতাধিক মাইক। কেউ হারিয়ে গেলে, কিছু খোয়া গেলে কিংবা অন্য যে কোনো জরুরি তথ্য কেন্দ্রীয় মাইকিং ব্যবস্থাপনায় জানানো হবে। গতবারের মতো এবারও পহেলা বৈশাখের সব অনুষ্ঠানস্থল থাকবে ধূমপানমুক্ত।আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ইতোমধ্যে বলা হয়েছে রমনা পার্কে প্রবেশ করার জন্য তিনটি এবং বের হওয়ার জন্য দুটি গেট থাকবে। বিকাল ৫টার পর অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ বন্ধ হয়ে যাবে। আর উন্মুক্ত স্থানে সন্ধ্যা ৬টার পর সব ধরণের অনুষ্ঠান কর্মসূচি বন্ধ থাকবে। পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে দা, কাচি, ছুরি, দাহ্য পদার্থ, ব্যাগ, বহন করা যাবে না। তবে নারীরা ছোট পার্স ব্যবহার করতে পারবেন।এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সদস্য নন, এমন কেউ সন্ধ্যা ৬টার পর ক্যাম্পাসে অবস্থান করতে পারবেন না।তল্লাশি কার্যক্রমে পুলিশকে সহযোগিতা করার জন্য সর্বসাধারণের প্রতি আহবান জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার।

Top
%d bloggers like this: