১০০ শয্যার হাসপাতাল হবে প্রতি উপজেলায় - Alokitobarta
আজ : বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদঃ
পবিত্র ঈদুল আজহায় সারা দেশে চার হাজার ৪০৭টি পশুর হাট বসবে রেটিংয়ের ভিত্তিতেই গ্রাহক ঋণ পাবে প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় রিমালের তাণ্ডবে ভেসে গেছে ৬৯৭ কোটি টাকার মাছ ১০ বছরে ১৮১ জন কর্মকর্তাকে (গ্রড-১ থেকে ৯) শাস্তি দেওয়া হয়েছে ৭৫ লাখের বেশি গ্রাহক বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন ,বিদ্যুৎ ও পানির জন্য হাহাকার দুদকে তলব বেনজীরকে বাংলাদেশ ব্যাংক নিজেই নিয়ম ভাঙছে! অর্থ লুটপাট বা গুরুতর কোনও অপরাধ করলেও ধরাছোঁয়ার বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা করমুক্ত যেসব সুযোগ-সুবিধা পান আগামী ৩০ মে পটুয়াখালীর কলাপাড়া ঘূর্ণিঝড় রিমানে ক্ষতিগ্রস্ত দুর্গত এলাকায় সফরের যাচ্ছেন প্রধানমন্...

১০০ শয্যার হাসপাতাল হবে প্রতি উপজেলায়


আলোকিত বার্তা:স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেছেন, দেশের প্রতিটি উপজেলায় ১০০ শয্যার হাসপাতাল করা হবে।শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের মাওলানা আকরাম খাঁ হলে অনুষ্ঠিত একটি প্রীতি সম্মিলন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। প্রীতি সম্মিলন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ঢাকায় জামালপুর সাংবাদিক ফোরাম।প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা এবং নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের দোরগোড়ায় মানসম্মত স্বাস্থ্য ও পুষ্টি সেবা পৌঁছে দিতে দেশের প্রতিটি উপজেলায় একটি করে ১০০ শয্যার হাসপাতাল তৈরি করা হবে।

ডা. মুরাদ হাসান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় জামালপুরও এগিয়ে যাবে। জামালপুরে শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ করা হবে। আমি ২৫০ শয্যার হাসপাতাল করার ঘোষণা দিয়েছি। জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ উপজেলার ৫০ শয্যাবিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ১০০ শয্যায় উন্নীত করা হবে। টেন্ডার হয়ে গেছে। জামালপুর হবে দেশের অন্যতম তিনটি জেলার মধ্যে একটি।একই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য মির্জা আজম বলেন, জামালপুরে ৫০টির বেশি উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ হাতে নেয়া হয়েছে। যার ১০ শতাংশও দৃশ্যমান হয়নি, শুধুমাত্র স্থানীয় জেলা প্রশাসনের অদক্ষতার কারণে। এই বিষয়গুলো গণমাধ্যমে তুলে ধরার জন্য জামালপুর সাংবাদিক ফোরামের কাছে তিনি আহ্বান জানান।তিনি বলেন, দেশের প্রতিটি বিভাগে একটি বা একাধিক বিমান বন্দর থাকলেও, ময়মনসিংহ বিভাগে কোনো বিমান বন্দর নেই। আমরা আমাদের বিভাগে একটি বিমানবন্দর চাই।ফোরামের সভাপতি আবু সাঈদের সভাপতিত্বে এতো আরো বক্তব্য রাখেন, সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন, বিটিআরসির সভাপতি জহিরুল হক, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিনসহ আরো অনেকে।

Top
%d bloggers like this: