এইচএসসি পরীক্ষা বরিশালে ১১৮ কেন্দ্রে চলছে - Alokitobarta
আজ : শনিবার, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদঃ
বৃষ্টি আইনে জয় পায় অস্ট্রেলিয়া দেশের ১০ অঞ্চলের ওপর দিয়ে ঝড়ের আভাস বন্যাদুর্গতদের সাহায্যে এগিয়ে আসার আহবান বিশ্বে শিশুমৃত্যুর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যঝুঁকি হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে বায়ুদূষণ চলতি অর্থবছরে বিদ্যুৎ খাতে ৩১ হাজার ৮৩৩ কোটি ভর্তুকি দেওয়া হয়েছে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বেড়েছে ৩১ কোটি ৮২ লাখ ৮০ হাজার মার্কিন ডলার মতিউর এক জাদুর বংশীবাদক বারবার বশ মানে দুদক মতিউর রহমানের দুই স্ত্রী, পাঁচ সন্তান ও আত্মীয়স্বজনের নামে গড়েছেন কয়েক হাজার কোটি টাকার স্থাবর-অস্থা... কুরবানির ঈদের পর ক্রেতার উপস্থিতি কম থাকলেও কৌশলে অস্থির করা হচ্ছে বাজার দ্বিতীয় স্ত্রী শাম্মীর গর্ভে ইফাত,ছাগলে ধরা ‘কালো বিড়াল’

এইচএসসি পরীক্ষা বরিশালে ১১৮ কেন্দ্রে চলছে


আলোকিত বার্তা:সারাদেশের সঙ্গে একযোগে বরিশালে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে শুরু হয়েছে এইচএসসি পরীক্ষা।প্রথম দিনের পরীক্ষা হওয়ায় বেশিরভাগ কেন্দ্রেই পরীক্ষার্থীরা ১ ঘণ্টা আগে থেকে আসতে শুরু করে। বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত নিয়মে পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্রের ভেতরে ঢুকতে হচ্ছে।বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের আওতায় বিভাগে এবার মোট পরীক্ষার্থী ৬৪ হাজার ৯১৯ জন।
সোমবার (১ এপ্রিল) সকাল ১০টা থেকে বরিশাল বিভাগের বরিশাল, ভোলা, ঝালকাঠি, পটুয়াখালী, পিরোজপুর ও বরগুনাসহ ৬টি জেলার ৩৩০টি কলেজের পরীক্ষার্থীরা ১১৮টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে বলে জানিয়েছেন বরিশাল বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর আনোয়ারুল আজিম।

মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্র ৩০ হাজার ২৯ জন এবং ছাত্রী ৩১ হাজার ৮৯০ জন। যার মধ্যে নিয়মিত ৫১ হাজার ৯৩৬, জিপিএ উন্নয়ন পরীক্ষার্থী ৮৭১, প্রাইভেট পরীক্ষার্থী ৩০ এবং অনিয়মিত পরীক্ষার্থী ১২ হাজার ৫৮২ জন। এবারের পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে অংশ নেবে ১৪ হাজার ৫০৮ জন, মানবিক থেকে ৩৪ হাজার ৪৮৮ এবং ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ১৫ হাজার ৯২৩ জন পরীক্ষার্থী।এদিকে,বিভাগের মধ্যে বরিশাল জেলা থেকে এবার সব থেকে বেশি শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে। বরিশাল জেলায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২৩ হাজার ৪৬০, ঝালকাঠি জেলায় ৫১৪৫ জন, পিরোজপুর জেলায় ৮ হাজার ২৮৬ জন, পটুয়াখালী জেলায় ১২ হাজার ৬১৭ জন, বরগুনা জেলায় ৬ হাজার ৫২৪ জন এবং ভোলা জেলায় ৮ হাজার ৮৮৭ জন।

এদিকে, কোনো পরীক্ষার্থী যেন কেন্দ্রে মোবাইল নিয়ে না আসে সে সম্পর্কিত ব্যানার প্রতি কেন্দ্রের মূল ফটকে প্রদর্শন করার পাশাপাশি কক্ষ পরিদর্শকদেরকেও মোবাইল নিয়ে কক্ষে ঢুকতে না করার জন্য নির্দেশ দিয়েছে বোর্ড কর্তৃপক্ষ। তবে কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও কেন্দ্র প্রধানরা একটি সাধারণ মোবাইল ফোন দাপ্তরিক কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।এছাড়াও পরীক্ষার্থীদের তাদের কলেজের নির্ধারিত পোশাক (ইউনিফর্ম) পরে পরীক্ষা কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে। যদি কোনো কলেজের নির্ধারিত পোশাক না থাকে তবে মার্জিত পোশাক পরে কেন্দ্রে যেতে পারবে পরীক্ষার্থীরা।

Top
%d bloggers like this: