রেমিট্যান্স ও রপ্তানিতে ডলারের অভিন্ন রেট নির্ধারণ - Alokitobarta
আজ : শনিবার, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদঃ
বৃষ্টি আইনে জয় পায় অস্ট্রেলিয়া দেশের ১০ অঞ্চলের ওপর দিয়ে ঝড়ের আভাস বন্যাদুর্গতদের সাহায্যে এগিয়ে আসার আহবান বিশ্বে শিশুমৃত্যুর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যঝুঁকি হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে বায়ুদূষণ চলতি অর্থবছরে বিদ্যুৎ খাতে ৩১ হাজার ৮৩৩ কোটি ভর্তুকি দেওয়া হয়েছে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বেড়েছে ৩১ কোটি ৮২ লাখ ৮০ হাজার মার্কিন ডলার মতিউর এক জাদুর বংশীবাদক বারবার বশ মানে দুদক মতিউর রহমানের দুই স্ত্রী, পাঁচ সন্তান ও আত্মীয়স্বজনের নামে গড়েছেন কয়েক হাজার কোটি টাকার স্থাবর-অস্থা... কুরবানির ঈদের পর ক্রেতার উপস্থিতি কম থাকলেও কৌশলে অস্থির করা হচ্ছে বাজার দ্বিতীয় স্ত্রী শাম্মীর গর্ভে ইফাত,ছাগলে ধরা ‘কালো বিড়াল’

রেমিট্যান্স ও রপ্তানিতে ডলারের অভিন্ন রেট নির্ধারণ


এবি সিদ্দিক ভুঁইয়া :দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো এখন থেকে প্রতি ডলার সর্বোচ্চ ১০৮ টাকা হিসেবে প্রবাসী আয় (রেমিট্যান্স) সংগ্রহ করবে। রপ্তানি বিল নগদায়ন হবে প্রতি ডলার ৯৯ টাকায়। অর্থাৎ রেমিট্যান্স আহরণ ও রপ্তানি বিল নগদায়নে ব্যাংকগুলোর গড় খরচ হবে ১০৩ টাকা ৫০ পয়সা। এর সঙ্গে এক টাকা যোগ করে আমদানিকারকের কাছে ডলার বিক্রি করবে ব্যাংকগুলো।ফলে এলসি সেটেলমেন্টের জন্য ডলার বিক্রি হবে ১০৪ টাকা ৫০ পয়সায়। এতে কিছুটা খরচ কমবে আমদানিকারকদের।রেমিট্যান্স ও রপ্তানিতে ডলারের অভিন্ন রেট নির্ধারণরোববার (১১ সেপ্টেম্বর) সোনালী ব্যাংকের বোর্ড রুমে অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) এবং বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের (বাফেদা) বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত আসে।বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাফেদার চেয়ারম্যান এবং সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আফজাল করিম, এবিবির চেয়ারম্যান সেলিম আর এফ হোসেনসহ বিভিন্ন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা।

বৈঠক শেষে বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের (বাফেদা) চেয়ারম্যান ও সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আফজাল করির বলেন, আমরা (বাফেদা-এবিবি) বাজার পর্যালোচনা করেছি। বাজার পর্যালোচনা শেষে আমাদের সিদ্ধান্ত হয়েছে এক্সচেঞ্জ হাউস ও সমগোত্রীয় ডিপার্টমেন্ট থেকে ডলারের সর্বোচ্চ রেট হবে ১০৮ টাকা। এ রেট সব এডি ব্যাংক মেনে চলার ব্যাপারে আমরা একমত হয়েছি। এটা পাঁচ কার্যদিবসের জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে। রেমিট্যান্সের এ রেট আগামীকাল থেকে পাঁচ কার্যদিবসের জন্য কার্যকর হবে। পরবর্তী সময়ে পর্যালোচনা করে নতুন রেট আসতে পারে। পাশাপাশি আমাদের রপ্তানি বিলের ক্ষেত্রে ৯৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে রপ্তানির জন্য এটি নির্ধারিত (ফিক্সড) রেট। রেমিট্যান্স আহরণ ও রপ্তানি বিল নগদায়নে ব্যাংকগুলোর গড় খরচ হবে ১০৩ টাকা ৫০ পয়সা। এর সঙ্গে এক টাকা যোগ করে আমদানিকারকের কাছে ডলার বিক্রি করবে ব্যাংকগুলো।

অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) চেয়ারম্যান সেলিম আর এফ হোসেন বলেন, আমরা সবাই একমত হয়ে যে রেট নির্ধারণ করে দিয়েছি, আগামীকাল (১২ সেপ্টেম্বর) থেকে তা কার্যকর হবে। এটি আগামী বেশ কিছুদিন চলতে থাকবে বা চালিয়ে যাবো। এ রেট সময়ের পরিক্রমায় পরিবর্তন হবে। আমরা মনে করি, এটা ফেয়ার এবং মার্কেট রেট। আমাদের এ পদক্ষেপ ব্যাংকিং সেক্টরের জন্য বড় মাইলফলক। আমাদের এ যাত্রায় সেন্ট্রাল ব্যাংকের মনিটরিং থাকবে।এর আগে গত সপ্তাহে ব্যাংকগুলো রপ্তানি আয় নগদায়ন করেছিল ১০৪-১০৬ টাকা দরে। নতুন সিদ্ধান্তের ফলে রপ্তানি বিল নগদায়ন হবে ৯৯ টাকায়। এতে খরচ কমবে আমদানি পণ্যে। রপ্তানি বিল নগদায়ন কমার ফলে দাম কমে আসতে পারে আমদানি পণ্যের। এর ফলে স্বস্তি ফিরে আসবে সাধারণদের মাঝে এমনটাই বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

Top
%d bloggers like this: