সব পুড়ে ছাই নিঃস্ব পরিবারের পাশে থাকার দৃষ্টান্ত - Alokitobarta
আজ : রবিবার, ১৪ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সব পুড়ে ছাই নিঃস্ব পরিবারের পাশে থাকার দৃষ্টান্ত


নিজস্ব প্রতিবেদকঃএকমাত্র আশ্রয়স্থল বসতবাড়ি আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে নিঃস্ব বরিশাল সিটির ২৭ নং ওয়ার্ডের ডেফুলিয়া দফাদার বাড়ী এলাকার মৃত মন্নান হাওলাদারের ছেলে মাসুদ।খবর শোনা মাত্র নিঃস্ব পরিবারের পাশে গিয়ে দাড়িয়েছেন বরিশাল মহানগর আওয়ামী যুবলীগ এর যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব মাহমুদুল হক খান মামুন সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দরা।জানাগেছে, গত ২৭ ফেব্রুয়ারী সোমবার রাতে আকস্মিক ভাবে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এর ২৭ নং ওয়ার্ডের ডেফুলিয়া দফাদার বাড়ী এলাকার মৃত মন্নান হাওলাদার ছেলে মোঃ মাসুদ হাওলাদারের বসতবাড়িতে আগুন লাগে৷ আগুন দেখে এলাকা বাসী আতঙ্কিত হয়ে যে যার মতো করে পানি দিয়ে নেভাতে লেগে পরলেও শেষ রক্ষা করতে ব্যার্থ হয়েছে তারা।এরপর বরিশাল ফায়ার সার্ভিসে কল করা হলে তারা আগুন লাগার ঘটনাস্থল প্রর্যন্ত রাস্তা প্রসস্থ না থাকায় খানাখন্দভরা রাস্তার কারনে যেতে পারেনি। ফলে গরীব অসহায় পরিবারের একমাত্র আশ্রয়স্থল বসতবাড়িটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। পিতা আঃমন্নান হাওলাদারের মৃত্যুর পর পরিবারের সকল দায়িত্ব দিনমজুর মোঃমাসুদ হাওলাদার এর কাধে থাকায় তার সকল পরিশ্রমের ফলে গড়ে ছিলো নিজের পৈতৃক ভিটায় একটি বসত ঘর৷ আর এই শেষ সম্বল আশ্রয়স্থল টুকু হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়লেও তার পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়নি কেউ।এরকম অসহায় গরীব দুস্থ পরিবারের অসহায়ত্বের কথা স্থানীয় রায়পাশা কড়াপুর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য, ২৭ নং ওয়ার্ড আঃলীগের সাবেক সহ সভাপতি মোঃআঃ রশিদ চৌধুরী মাহমুদুল হক খান মামুন কে মুঠো ফোনে অবহিত করলে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে বিষয় টি অবহিত করেন।এরপরপরই দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যান বিশিষ্ট সমাজসেবক ও বরিশাল মহানগর আওয়ামী যুবলীগ এর যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব মাহমুদুল হক খান মামুন ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মোঃমাহিদুর রহমান মাহাদ সহ স্থানীয় শীর্ষ নেতৃবৃন্দরা। আগুনে পুড়ে যাওয়া ছাইয়ের স্তুপের দৃশ্য স্বচক্ষে দেখে তাৎক্ষণিকভাবে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা সহ পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী’র বরাত দিয়ে আগুনে পুড়ে গিয়ে নিঃস্ব মোঃমাসুদ হাওলাদার কে ঢেউটিন ও সম্পূ্র্ন ঘড় নির্মান করে দেয়ার দায়িত্ব নিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন।নিঃস্ব হয়ে পড়লেও আগুনে পুড়ে ছাই এর স্তুপ দেখতে ভীড় জমালেও পরিবারটির পাশে না দাড়ানোয় সব হারিয়ে ভেঙে পড়া মাসুদ হাওলাদার পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী’র দেয়া প্রতিশ্রুতি এবং যুবলীগ নেতা খান মামুনের সহায়তা প্রদান করায় আবেগাপ্লুত হয়ে কেঁদে ফেলে। ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে পূর্বের ন্যায় জনগণের পাশে থাকার উদাহরণ বরিশাল মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক বিশিষ্ট সমাজসেবক আলহাজ্ব মাহমুদুল হক খান মামুন কে পাশে পেয়ে উপস্থিত শতাধিক স্থানীয় জনগন তাকে ঘিরে ধরে আসন্ন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এর নির্বাচনে মেয়র হিসেবে দেখতে চায় বলে দাবী জানায়৷ এসময় স্থানীয় দের দাবী শুনে তাদের উদ্দেশ্য করে বলেন, তিনি বরিশালের সাধারণ জনগনের বিপদে সব সময়ের জন্য ছিলেন আছেন এবং ভবিষ্যতেও থাকবেন৷ জনগন জনপ্রতিনিধি হিসেবে কাজ করার সুযোগ দিলে এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে মনোনয়ন দিলে তিনি জনগণের স্বার্থে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারায় বরিশাল সিটির উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাওয়ার অঙ্গীকার করেন। এতে করে স্থানীয়রা ব্যাপক খুশি হয় তার এই অঙ্গীকারে।

সাবেক এই ইউপি সদস্য জানান, ২৭ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যার পর হঠাৎ আগুন দেখে তিনি সহ স্থানীয়রা ছুটে গিয়ে বাড়িতে আগুন লাগার দৃশ্য দেখে সবাই যে যা পেয়েছে পাশের পুকুর ডোবা থেকে বালতিতে বালতিতে পানি দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আসলেও সিটি কর্পোরেশন এর রাস্তা অপরিকল্পিত ভাবে প্রস্থ কম থাকায় তারা কিছুই করতে পারে নি। যে কারনে চোখের সামনেই দাউ দাউ করে আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায় মাসুদ হাওলাদারের একমাত্র আশ্রয়স্থল বসতবাড়িটি।এদিকে মাসুদ হাওলাদার একমাত্র আশ্রয়স্থ হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। তিনি জানান, আগুনে পুরো ঘরসহ সকল আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ফলে তিনি মাথা গোঁজার শেষ সম্বলটুকু হারিয়েছেন।ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রাথমিকভাবে অনুমান করছে, আগুনের সূত্রপাত বৈদ্যুতিক সংযোগ থেকে হয়েছে।ভুক্তভোগী মাসুদ হাওলাদার জানান তার স্ত্রী ও বাচ্চা সন্ধ্যার পর ঘর তালা মেরে ডাক্তার দেখানোর জন্য বের হয়ে যাবার পর লোকজনের ছোটাছুটি দেখে তিনিও এসে দেখেন তার ঘড়টি আগুনে জ্বলছে। তিনি জানান তার প্রায় সাড়ে ১০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। জীবনের সব উপার্জন দিয়েই গড়ে ছিলো তার পৈতৃক ভিটায় বসতঘরটি সব হারিয়ে সে নিঃস্ব হয়ে পথে বসেছে। তিনি তার এই দুঃসময়ে সবাই যখন মূখ ফিরিয়ে নিচ্ছিলো তখন বরিশাল সদর আসনের সংসদ সদস্য ও পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক শামীম এমপি ও বরিশাল মহানগর আওয়ামী যুবলীগ এর যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব মাহমুদুল হক খান মামুন পাশে দাঁড়ানোয় নতুন করে বাঁচার আশা জেগেছে। তিনি আবেগাপ্লুত হয়ে কেঁদে খান মামুন কে জড়িয়ে কান্নায় ভেঙে পড়ে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

Top
%d bloggers like this: