দুপুরবেলায় ও সস্থিতে থাকতে নেই দরজা-জানালা খোলা রেখে। - Alokitobarta
আজ : সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদঃ
লড়াইয়ের গল্প গোটা বিশ্বের কাছে তুলে ধরাই.......অঙ্গীকার হওয়া উচিত পায়রা বন্দরের সঙ্গে সড়ক ও রেলের কানেকটিভিটি বাড়াতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ মেট্রোরেলের ভাড়ার ওপর ভ্যাট নেওয়ার সিদ্ধান্ত অগ্রহণযোগ্য চাকরির পেছনে ছুটে না বেড়িয়ে চাকরি দেওয়ার মানসিকতা তৈরি করুন বরিশাল বিমানবন্দর এরিয়া ভাঙ্গন রোধে কাজ করছে সরকার বিআরটিসির অগ্রযাত্রায় সাহসিক পদক্ষেপ,সাফল্যের মহাসড়কে অদম্য যাত্রা জুজুৎসুর নিউটনের যৌন নিপীড়নের ভয়ংকর তথ্য লুটপাটের স্বর্গরাজ্যে পরিণত করেছে বিদ্যুৎ খাতকে বেতন বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছে তৃতীয় শ্রেণি সরকারি কর্মচারী সমিতি সশস্ত্র সন্ত্রাসী ইসরাইল ও ফিলিস্তিনে তুমুল লড়াই চলছে

দুপুরবেলায় ও সস্থিতে থাকতে নেই দরজা-জানালা খোলা রেখে।


মো.মাসুম:দুপুরবেলায় ও সস্থি নেই বরিশালে। ওরাকল বিসিএস কোচিং এর বরিশাল শাখার অফিস সহকারী ফাহিম।আজ দুপুর ৩ টার দিকে খাবার পানি আনার জন্য বিএম কলেজ রোড এর ২য় তলা ভবন থেকে নিচে নামে পলকের মধ্যেই রুমে ডুকে ড্রয়ার তল্লাসি করতে থাকে আগন্তুক এক ব্যক্তি। ফাহিম অপরিচিত লোকটাকে দেখে ধরে ফেলে এবং বাড়ির মালিককে ডাক দেয়। স্থানীয় কয়েকজন ভাড়াটিয়ার উপস্থিতিতে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

সে নিজেকে নান্টু নামের এক লোকের বাসা খোজ করতে এখানে এসেছে বলে দাবি করেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর কোচিং মালিক আসলে তার হাতে দেয়া হলে তিনি কিছু প্রশ্ন করেন। পরে ঐ ব্যক্তির হাতে থাকা চার্জহীন ফোন অন করে দেখা যায় ফোনটা ও তার নয়। মেসেন্জার ও ইমু আইডি দেখে জানা যায় ফোনটা নামের এক মহিলার। তার নম্বরে ফোন দিয়ে জানা যায় তার ফোনটি ৫/৬ দিন আগে চুরি হয়েছে। আর এই ব্যক্তিটির নাম হলো মামুন। যার বর্ননামতে, তার বাড়ি কাউনিয়া বাগানবাড়ি এলাকায়। তিনি একজন দিন মজুর। কিন্তু ঘটনার প্রেক্ষিতে তিনি একজন পেশাদারি চোর। পরবর্তীতে পুলিশে খবর দিয়ে তাকে ফোনসহ থানা হাজতে পাঠানো হয়

Top
%d bloggers like this: